বরাত জোরে প্রাণে বাঁচলেন ট্রাম্প কন্যা

0
52

খুব বাঁচা বেঁচে গেছেন ট্রাম্প কন্যা ইভাঙ্কা ট্রাম্প ও মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স। তাদের সফরের মাত্র কয়েক ঘণ্টা আগে শুক্রবার রাতে বিস্ফোরণে কেঁপে উঠেছিল মেক্সিকোর মার্কিন দূতাবাস।

শনিবার সকালে মেক্সিকোর গুয়াডালাজারা শহরে মার্কিন দূতাবাসের সামনে গ্রেনেড হামলা চালায় একজন আততায়ী। বিস্ফোরণে তীব্রতায় ভেঙে পড়ে দূতাবাসের সামনের দেয়াল। তবে কেউ হতাহত হননি।

তবে এ ঘটনায় গোটা এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে৷ বিস্ফোরণের পর দ্রুত সেখানে ছুটে নিরাপত্তারক্ষীরা। কঠোর নিরাপত্তা আরোপ করা হয় গোটা এলাকায়।

এদিকে হামলাকারীর ছবি ধরা পড়েছে দূতাবাসের গোপন ক্যামেরায়৷ সেই সূত্র ধরেই তার খোঁজ শুরু করেছে পুলিশ। ঘটনার সঙ্গে মেক্সিকোর পাচারকারী সংগঠনগুলি যুক্ত থাকতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

নতুন প্রেসিডেন্ট অ্যানড্রেজ ম্যানুয়েল লোপেজ ওব্রাডরের শপথ অনুষ্ঠানে যোগ দিতেই শনিবার মেক্সিকোয সফরে গিয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্টের কন্যা ইভাঙ্কা ট্রাম্প ও ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেনস। ইভানঙ্কা ট্রাম্পের এটিই ছিল প্রথম মেক্সোকে সফর। সফরে গিয়ে তিক্ত অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হলেন ট্রাম্প প্রশাসনের প্রভাবশালী এই নারী।

তার সফরের আগেই বিস্ফোরণ ঘটে মেক্সিকোর মার্কিন দূতাবাসে।

এ ঘটনায় গুয়াডালাজারা শহরে অতিরিক্ত নিরাপত্তারক্ষী মোতায়েন করেছে মেক্সিকো প্রশাসন। সন্দেহজনক কোনও গতিবিধি লক্ষ্য করলেই যথোপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছে সেদেশের সরকার।

কেবল ইভাঙ্কাই নন, নতুন প্রেসিডেন্টের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার কথা রয়েছে আরও অনেক ভিভিআইপির। তাই কোনোরকম ঝুঁকি নিতে নারাজ মেক্সিকো প্রশাসন।

এদিকে মার্কিন দূতাবাসের বাইরে থাকা সিসিটিভি ক্যামেরায় দেখা যায়, এক ব্যক্তি বাইরে থেকে দূতাবাসের দিকে গ্রেনেড ছুঁড়ে পালিয়ে। আর তাতেই বিস্ফোরণ ঘটে। ক্যামেরায় ধরা পড়া ছবির সূত্র ধরেই ওই ব্যক্তির খোঁজে নেমেছে পুলিশ। তদন্তকারীদের অনুমান, ঘটনার সঙ্গে যুক্ত থাকতে পারে মেক্সিকোর মাদক পাচারকারী সংগঠনগুলি৷ কারণ, এর আগেও একাধিকবার তারা দূতাবাসে হামলার হুমকি দিয়েছে।